Translate

টিফিন হলেই বন্ধ হয় চর সাপড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

সাকলাইন শিহাব, শিশু বার্তা প্রতিনিধি, সিরাজগঞ্জ:
টিফিন হলেই ছুটি হয়ে যায় সিরাজগঞ্জের সদর উপজেলার চর সাপড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।টিফিনে বিদ্যালয় ছুটি দিলেও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে বসে থাকে দপ্তরি।


সদর উপজেলার কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নের চর সাপড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গেলে দেখা যায় এমন চিত্র।এ বিদ্যালয়ের বিভিন্ন শ্রেনীর শিক্ষার্থীরা বলেন,টিফিন হলেই ছুটি হয় তাদের স্কুল।আসেনা নিয়মিত শিক্ষকরাও।


শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের সাথে কথা বললে তারা জানান, এ বিদ্যালয়টির অনেক সুনাম ছিল।কিন্তু বর্তমানে শিক্ষকরা স্কুলের অবস্থা একেবারেই নষ্ট করে ফেলেছেন।তার নিয়মিত আসে না।অল্প সময় পড়িয়ে ছুটি দিয়ে দেয়।এছাড়া এ স্কুলের সহকারী শিক্ষক বাচ্চাদের বেধড়ক পেটায়।এ কারনে ভয়েই অনেক শিক্ষার্থী স্কুলে আসে না।


শিক্ষক না আসার বিষয়ে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখর কুমারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, সে হোম ভিজিটে আছেন।৩ জন সহকারি শিক্ষকের মধ্যে একজন ডেপুটেশনে ও একজন ছুটিতে রয়েছে।তিনি আরো বলেন,এস এম শাহীন আলম নামে এক শিক্ষকের বিদ্যালয়ে থাকার কথা।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়,দুপুর ১২টার সময়(টিফিনের আগেই) স্কুল ছুটি দিয়ে শিক্ষক এস এম শাহীন আলম শহরের চক কোবদাস পাড়া মহল্লার নিজ বাড়ীতে অবস্থান করেছে।


এদিকে স্কুলে সাংবাদিক আসার খবর পেয়ে প্রধান শিক্ষক শেখর কুমার,সহকারি শিক্ষক এস এম শাহীন আলম অতি দ্রুত বিদ্যালয়ে চলে আসেন এবং দ্রুত তারা অত্র বিদ্যালয়ের দপ্তরী আব্দুল মমিনকে দিয়ে শিক্ষাথীদের এক এক করে ডেকে নিয়ে আসেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য