Translate

রাজশাহীতে শিক্ষার্থী সহ সকলেরই এক ভোগান্তীর নাম ব্যাটারীচালিত অটোরিকশা

মুহাম্মাদ শরিফুজ্জামান, শিশুবার্তা প্রতিনিধি, রাজশাহীঃ


নগরায়ন ও শিল্পায়ন ঘটার কারণে রাজশাহীতে জনসংখ্যা দিনদিন বেড়েই চলেছে। তার সঙ্গে বাড়ছে যানবাহনের সংখ্যা। ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচলের ক্ষেত্রে সবার প্রথম পছন্দ। তাই জনসংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে অটোরিকশার সংখ্যাও। যার ফলে নগরীর প্রধান প্রধান এলাকাগুলোতে প্রায়শই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।


সিটি কর্পোরেশনের তথ্য বলছে, নগরীতে প্রায় ১০-১৫ হাজার ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা রয়েছে। কিন্তু প্রকৃত সংখ্যাটা এর চেয়েও ৩-৪ গুন বেশি। প্রতিদিনই ৩০-৪০ টা নতুন অটোরিকশা রাস্তায় নামছে।


যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং করা, অটোরিকশা চালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকা ও সংকীর্ণ রাস্তার জন্য প্রতিদিনই অনেকে দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে। যানজটের ফলে নগরবাসীর প্রচুর কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে।


শিক্ষার শহর হিসেবে পরিচিত রাজশাহীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগামী শিক্ষার্থীরাও নানা ভোভান্তীর স্বিকার হচ্ছেন প্রতিনিয়ত।


শিশুবার্তার সঙ্গে কথা হয় নগরীর এক স্থানীয় বাসিন্দার সঙ্গে। তিনি আমাদের বলেন, 'আজ থেকে ৪-৫ বছর আগেও এরকম যানজট ছিল না। যতই দিন যাচ্ছে, ততই যানজট বাড়ছে। এর মূলে রয়েছে, যন্ত্রচালিত অটোরিকশা।'


অন্য আরেকজন বাসিন্দা আমাদের বলেন, 'কর্তৃপক্ষের উচিত অবৈধ অটোরিকশাগুলোর বিরুদ্ধে শক্তিশালী পদক্ষেপ নেওয়া এবং বৈধ অটোরিকশাগুলোর যাবতীয় তথ্য সংরক্ষণ করা।'


কর্তৃপক্ষের একটা সুন্দর পদক্ষেপ নগরবাসীর জীবনে স্বস্তি ফিরিয়ে আনতে পারে, এমনটাই প্রত্যাশা করেন রাজশাহী নগরীর সকল বাসিন্দা।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য