Translate

টাঙ্গাইলে শিশুর ওপর হামলার বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ

শেখ মাজহারুল ইসলাম সোহান, টাংগাইল প্রতিনিধি, শিশু বার্তাঃ

"টাঙ্গাইলে শিশুর উপর হামলারঘটনায়মৃত্যু শয্যায় শিশু ফাহাদ, বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ।"


টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের দা’র কোপে ১০ বছরের শিশু ফাহাদ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সন্ধায় উপজেলার লক্ষিন্দর ইউনিয়নের সানবান্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশু ফাহাদ লক্ষিন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির ছাত্র।

এ হামলার প্রতিবাদে আজ (১৮মে) শনিবার দুপুরে সানবান্ধা বাজারে প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী বিচারের দাবিতে সাগরদিঘী-মধুপুর সড়ক প্রায় টানা ২ ঘন্টা সড়ক অবরোধ করে রাখে। সরেজমিনে গিয়ে যানাযায়, সানবান্ধা গ্রামের হাসান মাস্টারের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে ফাহাদ ও মেয়ে হাসি চাচাতো ভাই-ভাবিদের সাথে ফসলি জমিতে ছাগল যাওয়া নিয়ে কথা কাটাকাটি করার এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ রুশো,রুশোর স্ত্রী মর্জিনা,আলামিন ও সোনালি লাঠি দিয়ে এলোপাথারী আঘাত করতে থাকে।

এসময় ফাহাদের বাবা বাড়িতে না থাকায় কেউ প্রতিবাদ করতে এগিয়ে আসেনি। ফাহাদ ও হাসি ঘটনাস্থলে গেলে একপর্যায়ে রুশো দা হাতে নিয়ে ফাহাদকে কোপ দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। ঘটনাস্থলেই ফাহাদ ও হাসি জ্ঞান হারায়। প্রথমে ময়মনসিংহ ও পরে ঢাকা মেডিক্যালে কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এখন ফাহাদ মৃত্যু শয্যায় কাতরাচ্ছে।

এব্যাপারে রুশোর সাথে কথা বলতে চাইলে রুশোর স্ত্রী ফোন রিসিভ করে বলেন, ‘ওনি এলাকায় নেই। যা বলার আমাকে বলুন’। ঘটনা বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘রাগের মাথায় কখন কি হয়েছে বলতে পারবোনা’। ফাহাদের বাবা হাসান আলী মাস্টারে সাথে কথা বললে তিনি জানান, ফাহাদের রক্তক্ষরণ বন্ধ হয়েছে। তবে এখনো জ্ঞান ফিরেনি। অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক।

তৃতীয় শ্রেণির একাধিক শিক্ষার্থী প্রতিবাদ করে বলেন, ‘আমাদের সহপাঠি ফাহাদের উপর এ হামলার বিচার চাই’। এছাড়া কলেজ শিক্ষার্থী মাসুম,রাজু,একরামুলসহ­ অনেকে হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

সাগরদিঘী পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আশরাফুল ইসলাম জানান, ঘটনা জানতে পেরেছি। আহতদের চিকিৎসা দেয়ার পরামর্শ দিয়েছি। থানায় অভিযোগ করলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ