Translate

কবিতাঃঃ খোকার জ্ঞান

খোকার জ্ঞান
মোঃ মাহিন সরকার, ঠাকুরগাঁ


মাগো আমি ফেরার পথে
দেখেছি একটা ছেলে,
আনন্দে তার মনটা নাচে
রাস্তায় কিছু পেলে।
ঘর-বাড়ি তার নেই কোনো
নেই যে ঠিকানা,
এতিম করে হারিয়ে গেছে
সেই ছেলেটির বাবা-মা।
পথের মাঝে থাকে সে
পথই তো তার সব,
মিললে পথে ভাঙা বোতল
জাগে খুশির মহারব।
সে শিশুটির গতর থেকে
বের হয় দুগন্ধ রোজ,
প্রতিরাতে কাঁদে
ক্ষিদের জালায়
তবু কেউ করেনা খোঁজ।
ওর বয়সী ছেলেরা যখন
পাঠশালাতে পড়ে,
ওদের দেখে সে মনের পাড়ায়
স্বপ লালন করে।
স্বপ্নগুলো মিথ্যে হলে
ঝড়ায় নয়ন জল,
হারিয়ে ফেলে পাঠের সাহস
হারিয়ে ফেলে বল।
বৃষ্টি এলেই যায় ভিজে যায়
মাথায় কেউ ধরেনা ছাতা,
শীতের মাসে ঠান্ডা হাওয়ায় কেঁপে
এক হয়না চোখের পাতা।
সেই ছেলেটা বড্ড একা
তার উপরে নেই কোনো ছায়া,
আমায় গো মা বস করেছে
সে ছেলেটির মায়া।
আামি যেমন ছেলে তোমার
সেও তো একটা ছেলে,
আমার আদরের একটু ভাগ
দাওনা তাকেও ঢেলে।
অবুঝ ছেলের জ্ঞানি কথায়
মা বললো কাঁন্না স্বরে,
কোথায় আছে সে ছেলেটি?
তাকে দেখবো দুচোখ ভরে
খোকারে তোর বিশাল জ্ঞানের হয়না তুলনা,
আজ থেকে তোর শুধু না
আমি সে ছেলেটিরও মা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ