Translate

গাইবান্ধায় খেলাঘর জাতীয় শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত




মেহেদী হাসান, শিশু বার্তা প্রতিনিধি, গাইবান্ধা সদরঃ মননশীল চর্চার মাধ্যমে শিশুর মনকে সৃজনশীল ও সুন্দর করে গড়ে তোলাই এই প্রতিযোগিতার অন্যতম উদ্দেশ্য নিয়ে দেশব্যাপী চলমান প্রতিযোগিতার অংশ হিসেবে গাইবান্ধায় আজ ২৭ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টায় পৌরপার্কের শহীদ মিনার চত্ত্বরে জেলা পর্যায়ে খেলাঘর জাতীয় শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আফরোজা লুপুরের সভাপতিত্বে ও মোঃ মেহেদী হাসানের সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গাইবান্ধা পৌর মেয়র শাহ্ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন ও খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জাতীয় শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার যুগ্ম আহবায়ক তাহাজুল ইসলাম ফয়সাল।

জেলা পর্যায়ে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় চারটি গ্রুপের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শতাধিক শিক্ষার্থী  অংশগ্রহন করেন। প্রতি গ্রুপের পাঁচ জন করে মোট ২০ জন বিজয়ীকে সেরা ঘোষনা করা হয় শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় জেলার অংশগ্রহণকারী সকল প্রতিযোগীকে সনদপত্র প্রদান করা হয়।

জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করার সুযোগ পাওয়া প্রতিযেগির নাম যথাক্রমে রোহেদ কুমার, রওনক চৌহান, নাহিয়ান, মাজিরিহা তাওহীদ, নাকিব আল শাহরিয়ার, সোহানুজ্জামান, মেহেরুল হাসান, অরিত্র কুমার,জয়িতা সাহা, হুসনাইয়ান হাসান, সানজিদা রহমান, হাবিবা জান্নাতি, নিশাত ইয়াসমিন, নুসরাত জাহান, জান্নাতুন সানজিদা, বুশরা জাহান, মাজেদুর রহমান, ফাহিম ফয়সাল, মুনতারিমা আক্তার, সাদিয়া আফরিন।


সকল জেলা থেকে পুরস্কার প্রাপ্ত শিশু শিল্পীদের চিত্রকর্ম নিয়ে ঢাকায় ৫ (পাঁচ) দিনব্যাপী খেলাঘর জাতীয় শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ২০১৯ অনুষ্ঠিত হবে। এ প্রদর্শনীতে স্থান পাওয়া চিত্রকর্ম থেকে বাছাইকৃত চিত্রকর্ম নিয়ে চার রঙের সুদৃশ্য ক্যাটালগ প্রকাশ করা হবে এবং জেলা পযায়ের বিজয়ী ও জাতীয় পর্যায়ের বিজয়ীকে পুরষ্কার প্রদান করা হবে।

উল্লেখ্য যে, শিশু-কিশোরদের অসাম্প্রদায়িক, বিজ্ঞানমনস্ক ও মানবিকবোধ সম্পন্ন মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে খেলাঘর নিরলসভাবে কাজ করছে। ১৯৫২ এর ভাষা আন্দোলনের চেতনায় জন্ম নেওয়া খেলাঘর, ’৭১ এ জীবন উৎসর্গকারী শহীদদের রক্তস্নাত মহান মুক্তি সংগ্রামের পথ ধরে হয়ে উঠেছে আজ বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ শিশু-কিশোর সংগঠন। শিশুর বাসযোগ্য একটি নিরাপদ বাংলাদেশ বিনির্মানে খেলাঘর পথ চলে।

প্রতিযোগিতা শেষে গাইবান্ধায় ঘাঘট খেলাঘর আসর নামে নতুন শাখা গঠন করা হয়। মেহেদী হাসানকে আহবায়ক করে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিকে শপথ বাক্য পাঠ করান খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তাহাজুল ইসলাম ফয়সাল।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য