Translate

বগুড়ায় ১০ম শ্রেণীর কিশোরের তৈরী মোবাইল অ্যাপে সেবা পাচ্ছে হাজারো মানুষ

শিশু বার্তা প্রতিনিধি বগুড়া:

করোনা অতিমারী ভাইরাসের কারণে পিছিয়ে নেই আগামীর শিশুরা। নিজের মেধা দিয়ে উদ্ভাবন করেছে একের পর এক প্রজেক্ট কখনো বিজ্ঞানমেলায় কখনো বা দেখায় যায় বির্তকশালায়। এদের মতো ক্রিয়েটিভ শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যাৎ। করোনা ভাইরাসের ফলে থেমে গেছে দেশ কিন্তু থেমে ছিল না দুরন্ত এই কিশোর। একেক পর কাজ করে মানুষের মনে জায়গা করেছে।

মানবসেবা থেকে শুরু রক্ত নিয়ে কাজ করেছে এই সম্ভবনাময় এই ‌কিশোর। কভিড-১৯ এ তাক লাগনোর মতো কাজ করছে সে। উদ্ভাবন করেছে বøান্ড ডোর্নাস মোবাইল এ্যাপ্লিকেশন। এর ফলে সহজেই বøাাড ম্যানেজ করা যাবে এবং বাচঁতে পারবে অনেক প্রাণ। রক্ত মানুষকে বাচায়।

এই উদ্ভাবণ বগুড়া জেলা তথা সোনাতলা উপজেলার মানুষের মাঝে এক উদ্দীপনা সৃষ্টি করেছে। সোনাতলা সাংস্কৃতি অঙ্গনের বিভিন্ন ব্যক্তি বর্গের সাথে কথা বলে জানতে পারি"শাকিল এক সৃজনশীল কিশোর, সৃজনশীলতার মাধ্যম সবার মনে জায়গা করেছে নিয়েছে শুধু তাই নয় সাংস্কৃতি অঙ্গনে এই দুরন্ত কিশোরের অবদান আনিস্বীকার্য।

বøাড ডোর্নার এ্যাপ সম্পর্কে সুফলভোগীরা জানায়, "অ্যাপটি খুবই কার্যকরী খুব সহজেই মানুষ রক্ত সংগ্রহ করতে পারবে এবং অ্যাপটিতে অসাধারণ সব ফিচারের মাধ্যমে সহজেই জানা যাবে কারা রক্ত দিতে উৎসাহিত কারা ইতি পূর্বে কারা রক্ত দিয়েছে সবই জানা যাবে।

ইতিমেধ্য সে বগুড়া স্টুডেন্ট বøাড আর্গানাইজেশন এর ৩য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সংবর্ধণা পেয়েছেন এবং স্কুল কলেজ পড়–য়া শিশু কিশোরদের মুখে এক অনবদ্য নামের সৃষ্টি হয়েছে "হিরো অফ বগুড়া"। অ্যাপটি বর্তমানে গুগল প্লে-স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে, ডোনাসরা খুবই সহজেই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবে রক্ত দান এবং রক্ত সংগ্রহ করতে পারবে।

অ্যাপটির নামকরণ সম্পর্কে যেটুকু জানতে পেরেছি "ঐবৎড় ড়ভ নড়মঁৎধ" এই নামে বর্তমানে অ্যাপটি পাওয়া যাচ্ছে  গুগল প্লে স্টোরে ,নামকরণে এক অনবদ্য ইতিহাস নিয়ে করা হয়েছে বগুড়া সারা বিশ্বের মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্যই অ্যাপটির নাম দেওয়া হয়" হিরো অফ বগুড়া"। সৃজনশীল কাজে এগিয়ে যাক বাংলাদেশে। কিশোর-তরূণের অনুপ্রেরণায় তৈরি হচ্ছে আগামীর ভবিষ্যাৎ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য