Translate

রংপুরে শিশু ধর্ষণ ও হত্যা : ১ জনের ফাঁসির আদেশ

শিশু সংবাদ ডেস্ক:

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার ওসমানপুর গ্রামে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে শ্বাসরোধ করে হত্যা ও মরদেহ মাটি চাপা দিয়ে গুমের অভিযোগে আসামি হিরু মিয়া ওরফে খোঁড়া হিরুকে দোষী সাব্যস্ত করে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। সেই সাথে এক লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। 

দীর্ঘ ৯ বছর পর রোববার (৭ নভেম্বর) দুপুরে রংপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-৩ এর বিচারক আলী আহাম্মেদের আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন।

মামলায় জানা গেছে, ২০১৩ সালের ১১ এপ্রিল সকালে জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার নন্দরামপুর ফতেপুর গ্রামের জহুরুল হকের ৬ বছরের শিশু কন্যাকে আসামি হিরু ওরফে খোঁড়া হিরু তার বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ঘরের মধ্যে ধর্ষণ করে। এরপর শ্বাসরোধ করে হত্যা করার পর মরদেহ তার ঘরের মেঝেতে মাটি চাপা দিয়ে রাখে।

পরে নিহত শিশুর স্বজন ও এলাকাবাসী আসামি হিরুর বাড়িতে তার নিজের ঘর থেকে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে। পরে পীরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজের মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় নিহত শিশুর চাচা খলিলুর রহমান একদিন পরে ১২ এপ্রিল বাদী হয়ে পীরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করে। আসামি হিরু আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে শিশুটিকে হত্যা করে মরদেহ নিজের ঘরে মাটি চাপা দেয়ার কথা স্বীকার করে। 

বাদী পক্ষে আদালতে ১৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য ও জেরা শেষে বিজ্ঞ আদালত আসামি হিরুকে দোষী সাব্যস্ত করে ফাঁসির আদেশ দেন। সেই সাথে আদেশ দেয়া হয় এক লাখ টাকা জরিমানার। 

সরকার পক্ষে মামলা পরিচালনাকারী আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিশেষ পিপি অ‌্যাড. তাইজুর রহমান লাইজু জানিয়েছেন, আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এ রায় দিয়েছেন। এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ