Translate

সিরাজগঞ্জে গত ৮ মাসে পানিতে ডুবে প্রাণ হারালো ২৬ শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদক:

পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যুর হার আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। সিরাজগঞ্জে গত ০৮ মাসে ২৬ জন শিশু পানিতে ডুবে মারা গেছে বলে সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা গেছে। এ জন্য শিশুদের বাধ্যতামূলক সাঁতার শেখানোর ওপর জোর দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। ২০২১ সালের ১৬ ফেব্র“য়ারি থেকে ০৪ সেন্টেম্বর ২০২১ পর্যন্ত স্থানীয় দৈনিক পত্রিকাগুলোতে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে এ তথ্য উঠে এসেছে।

১৬ ফেব্র“য়ারি- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে পানিতে ডুবে আবির (২) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নিহত শিশু আবির পৌর শহরের দ্বারিয়াপুর গ্রামের মো: ফারুক হোসেনের পুত্র। 

পত্রিকা সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১) সকালে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌর শহরের দ্বারিয়াপুর দক্ষিন পাড়া গ্রামের মোঃ ফারুক হোসেনের শিশু পুত্র আবির (২) নীজ বাড়িতে টিউবয়েলের পাশে পানি ভর্তি বালতি নিয়ে খেলা করছিল।

একপর্যায়ে সবার অগোচরে আবীর পানি ভর্তি বালতিতে পরে যায়। পরে শিশু আবিরের মা আঞ্জু বেগম (৩০) পানি আনতে টিউবয়েলে গেলে বালতিতে পরা শিশু পুত্রকে দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করে। তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে শিশু আবিরকে স্থানীয় শিশু হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

৬ মার্চ-২০২১ : 

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার ফুলজোড় নদীর পানিতে ডুবে অরণ্য (৮) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। জানাযায়, উল্লাপাড়া উপজেলার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের আমডাঙ্গা গ্রামে শুক্রবার (৬মার্চ-২০২১) দুপুরে অরণ্য তার খেলার সাথীদের নিয়ে পার্শ্ববর্তী ফুলজোর নদীতে গোসল করতে নামে। একপর্যায়ে সে পানিতে ডুবে যায়। এসময় সহপাঠিদের চিৎকারে অরণ্যর পিতা সুফল হাওলাদার সহ অন্যরা পানিতে নেমে খোঁজাখুজির পর অরণ্যর মৃত্য দেহ উদ্ধার করে। পানিতে ডুবে শিশু অরন্যর মৃত্যর পর এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

৩০ মার্চ ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ মার্চ ২০২১) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়নের ভায়াট গ্রামের উত্তরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলো- একই গ্রামের শাহজাহান আলীর মেয়ে জান্নাতী খাতুন (১০) এবং বাচ্চু আহমেদের মেয়ে বিথী খাতুন রিতা (১২)। জান্নাতী ভায়াট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রী ও বিথী ভায়াট ভিএস উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী ছিল।

স্থানীয়রা জানান, ভায়াট উত্তরপাড়ায় নতুন পুকুর নামে একটি পুকুর লিজ নিয়ে খালখুলা গ্রামের বরাত আলী মাছ চাষ করে আসছিলেন। সকাল দশটার দিকে তিনি পুকুরে মাছ ধরার জন্য কীটনাশক প্রয়োগ করেন এবং মাছ ধরে বাড়ি চলে যান। পরবর্তীতে পুকুরে মাছ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী মাছ ধরতে সেখানে নেমে পড়ে। তাদের সঙ্গে জান্নাতী খাতুন এবং বিথী খাতুন রিতাও মাছ ধরতে যায়। একপর্যায়ে দুজনই গভীর পানিতে ডুবে যায়। পরে লোকজন বিষয়টি টের পেয়ে দ্রুত তাদেরকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে তারা মারা যায়।

নওগাঁ ইউনিয়নের ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আশরাফ আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মাছ ধরার সময় দুই শিশু পানিতে ডুবে মারা যায়।

০২ এপ্রিল ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় পানিতে ডুবে মো. মোস্তাকিন নামে ১৮ মাসের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২ এপ্রিল ২০২১) সকালে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের জালশুকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মৃত মোস্তাকিন জালশুকা গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে।

রামকৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম হিরো বলেন, সকালে শিশুটি বাড়ির উঠানে খেলা করছিল। পরে খেলতে খেলতে বাড়ির পাশের পুকুরে পড়ে যায়। তাকে না পেয়ে পরিবারের লোকজন আশপাশে খোঁজাখুঁজি শুরু করে।

এরইমধ্যে ওই পুকুরের পানিতে ভাসতে দেখা যায় মোস্তাকিনকে। পরিবারের লোকজন তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়।

২৩ এপ্রিল-২০২১ :

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে সরকারি খালের পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২৩ এপ্রিল, ২০২১) সকালে উপজেলার নাড়ুয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান রায়গঞ্জ থানার ওসি শহিদুল ইসলাম।

নিহতরা হলো- উপজেলা নাড়ুয়া গ্রামের আবুল হাশেমের মেয়ে আয়শা মনি (৫) ও বেংনাই গ্রামের সেলিম আহম্মেদের ছেলে হানজেলা (৪)।

ওসি শহিদুল বলেন, নিহতরা সর্ম্পকে খালাতো ভাইবোন। শুক্রবার সকালে তারা বাড়ির পাশে একটি খালে গোসল করার সময় সকলের অগোচরে পানিতে তলিয়ে যায়। মরদেহ ভেসে ওঠার পর স্বজনরা বিষয়টি জানতে পারে। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

২৫ এপ্রিল- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে ডোবার পানিতে ডুবে তাসকিয়া খাতুন (১৪ মাস) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (২৫ এপ্রিল-২০২১) সকালে সলঙ্গা হাটিকুমরুল ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশু তাসকিয়া খাতুন থানার রাধানগর গ্রামের আলহাজ আলীর মেয়ে।

সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানী জানান, সকালে বাড়ির উঠানে খেলা করছিল তাসকিয়া খাতুন। খেলার এক পর্যায়ে সবার অজান্তে বাড়ির পাশে ডোবার পানিতে ডুবে যায়। পরে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে এক ঘণ্টা পর ডোবাতে শিশু তাসকিয়ার মরদেহ ভাসতে দেখে মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

৩ মে- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ছোনগাছায় পানিতে ডুবে সানজিদ (৪) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (৩ মে ২০২১) দুপুরে ছোনগাছা ইউনিয়নের টুকরো ছোনগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশু সানজিদ ওই গ্রামের সোনা উল্লাহর ছেলে।

ছোনগাছা ইউপি সদস্য সেলিম হোসেন নিহতের চাচা আলী হাসানের বরাত দিয়ে জানান, দুপুরের দিকে বাড়ীর পাশে পুকুরে অন্যান্য শিশুদের সঙ্গে গোসল করতে নামে সানজিদ। গোসলের এক পর্যায়ে সবার অজান্তে পানিতে ডুবে যায়। পরে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে শিশু সানজিদের মরদেহ ভেসে ওঠে। তাৎক্ষনিক পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

১০ মে- ২০২১ :

পানিতে ডুবে সিরাজগঞ্জ সলঙ্গা থানার সলঙ্গা নতুনপাড়ার গ্রামের মোস্তফা আলীর ছেলে শিশু হাসান আলী (৫) ও এরান্দহ গ্রামে কামরুল ইসলামের ছেলে জিহাদ হোসেন (৬) নামের দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

সোমবার (১০ মে ২০২১) দুুুপুর ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশুর স্বজনরা জানান, এরা দুই জন বাড়ির পাশে খেলতে যায়। দুপুরের দিকে বাড়ির লোকজন তাদেরকে না দেখে অনেক খোঁজাখুঁজি করে। পরে দুপুর তিনটার দিকে তাদের লাশ পুকুরে ভেসে থাকতে দেখে তাৎক্ষনিক পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ হাটিকুমরুল গোল চত্তর সাখাওয়াত এইচ মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ সময় জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ড. তাপস তাদের দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

১৮ মে- ২০২১:

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে ডোবার পানিতে ডুবে ফাহিমা খাতুন নামে দুই বছরের এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ মে, ২০২১) দুপুরের দিকে সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের চড়িয়া কালিবাড়ি পুর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশু ফাহিমা খাতুন থানার চড়িয়া কালিবাড়ি পুর্বপাড়া গ্রামের ফণি হোসেনের কন্যা।

সলঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাদের জিলানী জানান, সকালে বাড়ির উঠানে খেলা করছিল ফাহিমা খাতুন। খেলার এক পর্যায়ে সবার অজান্তে বাড়ির পাশে ডোবার পানিতে ডুবে যায়। পরে উঠানে তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুজি করে পরিবারে লোকজন।

দুই ঘণ্টা পর ডোবাতে শিশুর মরদেহ ভাসতে দেখে উদ্ধার করে স্বজনরা। এ ঘটনায় পরিবারের মধ্যে শোকের ছায়া বিরাজ করছে।

২০ মে- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় বাড়ির পাশে খেলতে গিয়ে পুকুরের পানিতে ডুবে তানজিদ আহম্মেদ (৪) নামে এক শিশু মারা গেছে।

বৃহস্পতিবার (২০ মে ২০২১) বিকা ৩টার দিকে সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের মাছুয়াকান্দি গ্রামে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশু তানজিদ আহম্মেদ মাছুয়াকান্দি গ্রামের আব্দুল আলিম শেখের ছেলে।

পরিবারের লোকজন নিখোঁজের এক ঘণ্টা পর পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় শিশুরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য সেলিম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, দুপুরে বাড়ির পাশে খেলা করছিল তানজিদ। খেলার এক পর্যায়ে সবার অজান্তে বাড়ির পাশে পুকুরের পানিতে ডুবে যায়। পরে তাকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি করে পরিবারে লোকজন। দীর্ঘ এক ঘণ্টা খোঁজাখুঁজির পর পুকুর থেকে শিশু তানজিদকে ভাসতে দেখে উদ্ধার করে স্বজনরা।

পরে স্থানীয় সাখাওয়াত এইচ মেমোরিয়াল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাপস কুমার তানজিদকে মৃত ঘোষণা করেন।

২২ মে- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলায় পুকুরের পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২২ মে ২০২১) সন্ধ্যায় উপজেলার তালম ইউনিয়নের তারাটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এই দুই শিশু হলো-মোক্তার হোসেনের মেয়ে মুক্তি খাতুন (৮) ও তার খালাতো ভাই কাজীপুর উপজেলার সোনামুখী গ্রামের নুকুল হোসেনের ছেলে আশিকুর রহমান (৭)।

তাড়াশ উপজেলার তালম ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আব্বাস-উজ-জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মাগরিবের আজানের আগে ঝড় হয়। সম্ভবত আম কুড়ানোর জন্য শিশু দুটি পুকুর পাড়ে যায় এবং পা পিছলে পড়ে যায়।

শনিবার তাড়াশ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুস সালাম বলেন, বাড়ির লোকজনের অগোচরে আম কুড়াতে গিয়ে শিশু দুটি পা পিছলে পুকুরে পড়ে যায়। পরে বাড়ির লোকজন খোঁজাখুঁজি করে পুকুর থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। কোনো অভিযোগ না থাকায় মৃত দুই শিশুর দাফন করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

০৮ জুন- ২০২১ : চৌহালী উপজেলায় যমুনা নদীতে নৌকাডুবির পর এক শিশুর লাশ উদ্ধার হয়েছে আরেক শিশুসহ দুই জন নিখোঁজ রয়েছে।মঙ্গলবার (০৮ জুন ২০২১) সন্ধ্যায় জনতা হাই স্কুলের পাশে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে চৌহালী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান।

নিহত তানিয়া (৪) সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পাঁচবাঙ্গলা গ্রামের মনিরুল ইসলামের মেয়ে।

নিখোঁজ রয়েছে তানিয়ার ৪ মাস বয়সী বোন তাসলিমা ও অজ্ঞাত পরিচয় একজন।

ওসি রফিকুল বলেন, সন্ধ্যায় চৌহালী উপজেলার খাষকাউলিয়া ইউনিয়ের জোতপাড়া নৌকা ঘাট থেকে কাঁঠাল বোঝাই একটি ইঞ্জিন চালিত ছোট নৌকা ১৫/১৬ জন যাত্রী নিয়ে শাহজাদপুরের বানতিয়ার এলাকার দিকে রওনা হয়।

“প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে জনতা হাই স্কুলের পাশে নদীর প্রচণ্ড ঢেউয়ের কবলে পড়ে নৌকাটি ডুবে যায়। অন্য যাত্রীরা সাঁতরে তীরে উঠলেও দুই শিশুসহ তিন জন পানিতে তলিয়ে যায়। স্থানীয়দের সহায়তায় এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা সম্ভব হলেও বাকি দুজন নিখোঁজ রয়েছে। ওসি রাত ১০টার দিকে বলেন, নদীতে বেশি গ্রোত থাকায় ধারণা করা হচ্ছে নিখোঁজরা ভাটির দিকে ভেসে গেছে।

১৩ জুন, ২০২১ :

সিরাজগঞ্জে পানিতে ডুবে সাদিয়া আক্তার (৮) নামের পাঁচ বছর বয়সী এক শিশু মারা গেছে। রোববার (১৩ জুন, ২০২১) দুপুরে জেলার সদর উপজেলার বহুলি ইউনিয়নের বাগডুমুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।সাদিয়া সদর উপজেলার বহুলি ইউনিয়নের বাগডুমুর গ্রামের নুরু শেখের মেয়ে।স্বজনরা জানায় রোববার সকাল থেকে সাদিয়াকে পাওয়া যাচ্ছিল না। দুপুরে বাড়ীর পাশে খালে তার মৃতদেহ ভেসে উঠে। এরপর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ রোকন উদ্দিন খবরটি নিশ্চিত করে জানান, দুপুর পৌনে একটার দিকে সাদিয়াকে নিয়ে স্বজনরা হাসপাতালে আসে কিন্ত তার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

০৩ জুলাই, ২০২১ : সিরাজগঞ্জের কাজিপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে সাদিয়া আক্তার (৮) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (৩ জুলাই ২০২১) দুপুরে বাড়ির পাশের পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত সাদিয়া কাজিপুর পৌর এলাকার বেড়ীপোটল গ্রামের আব্দুস সোবাহানের মেয়ে।

শিশুটির বাবা আব্দুস সোবাহান জানান, শনিবার সকাল থেকেই সাদিয়া নিখোঁজ ছিল। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে দুপুরের দিকে বাড়ির পাশের পুকুরে তার মরদেহ ভেসে উঠলে তাকে উদ্ধার করে কাজিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

২৬ জুলাই- ২০২১ :

রায়গঞ্জ উপজেলায় খালুর বাড়ি বেড়াতে এসে পুকুরে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে রুবাইয়া খাতুন (১০) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।সোমবার (২৬ জুলাই ২০২১) বিকেলে উপজেলার ধানগড়া ইউনিয়নের বিলচন্ডি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত রুবাইয়া খাতুন একই উপজেলার চান্দাইকোনা ইউনিয়নের দেবরাজপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের মেয়ে ও নিঝুরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী।

শিশুটির খালু ওসমান গনি জানান, ঈদ উপলক্ষে তার বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল রুবাইয়া। সোমবার দুপুরে বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করতে নেমে হঠাৎ ডুবে যায় সে। অনেকক্ষণ খোঁজাখুঁজির পর তাকে পুকুর থেকে উদ্ধার করা হয়। দ্রুত উদ্ধার করে রায়গঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

২৮ জুলাই- ২০২১: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় বন্যার পানিতে ডুবে রাইয়ান (১৬) নামে এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (২৮ জুলাই, ২০২১) দুপুরে উপজেলার বড়পাঙ্গাসী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রাইয়ান ওই গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে।

উল্লাপাড়ার বড়পাঙ্গাসী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির লিটন জানান, ঢাকার ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম ঈদুল আজহা উপলক্ষে গ্রামের বাড়ি বড়পাঙ্গাসীতে আসেন। গতকাল দুপুরে তার এসএসসি পরীক্ষার্থী ছেলে রাইয়ান বন্ধুদের সঙ্গে বন্যার পানিতে নৌকা নিয়ে ঘুরতে যায়। সেখানে গিয়ে অন্যদের সঙ্গে সে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে যায়। এ সময় রাইয়ানের বন্ধুরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে। পরে স্বজনরা খবর পেয়ে তাকে গভীর পানি থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে উল্লাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

২৭ আগস্ট- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার খাষকাউলিয়া ইউনিয়নের চৌদ্দরশি গ্রামে বন্যার পানিতে ডুবেইমরান (৩ ) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (২৭ আগস্ট ২০২১) বেলা ৪টার দিকে উপজেলার খাষকাউলিয়া ইউনিয়নের চৌদ্দরশি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।নিহত শিশু ইমরান হোসেন আব্দুর রউফের ছেলে। চৌহালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন জানান, বন্যার পানিতে বাড়ির আশপাশের জলাশয় ভরে উঠলে সেই পানিতে খেলতে গিয়ে শিশু ইমরানের মৃত্যু হয়েছে। বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিলে চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন।

০৩ সেপ্টেম্বর- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে পানিতে ডুবে সোহাগ নামে আড়াই বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (০৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সে উপজেলার মাগুড়া বিনোদ ইউনিয়নের ঘরগ্রাম পুর্বপাড়া সাত্তারের ছেলে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১) দুপুরে শিশু সোহাগ বাড়ির উঠানে খেলা করছিল। এ সময় তার মা কাজে ব্যস্ত ছিলেন। চারিদিকে বর্ষার পানি থাকায় উঠানের কাছেই সবার অগোচরে ডুবে যায়। একর্পযায়ে বড় মেয়ে এসে শিশু সোহাগের খোঁজাখুঁজি করে। এ সময় বাড়ির উঠানে পানির মধ্যে ভেসে ওঠে সোহাগ। পরে তাকে উদ্ধার তাড়াশ হাসপাতালে নেয়া হয়।

৪ সেপ্টেম্বর- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের চৌহালীতে বন্যার পানিতে ডুবে তোয়া (৩) নামের এক শিশুর প্রাণহানি হয়েছে। শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর- ২০২১) সকালে উপজেলার খাষপুকুরিয়ার ইউনিয়নের কোদালিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু ওই এলাকার সবুর সিকদারের মেয়ে।

নিহতের পিতা সবুর সিকদার জানান, শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১) সকালে তোয়া মনি বাড়ির উঠানে খেলা করছিল। খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে বাড়ি পাশে বন্যার পানিতে ভাসমান অবস্থায় তাকে পাওয়া যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করে।

চৌহালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক এস এম আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, শিশুটিকে হাসপাতালে আনার আগেই মৃত্যু হয়েছে।

৮ সেপ্টেম্বর-২০২১ :

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় পানিতে ডুবে মোহাম্মাদ আলী (৭) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর ২০২১) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বাগধা গ্রামের সরস্বতী শাখা নদীতে ডুবে শিশুটি মারা যায়।

নিহত শিশু মোহাম্মাদ আলী সলঙ্গা থানার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের ধোপাকান্দি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। হাটিকুমরুল ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য (মেম্বার) মোহাব্বত আলী শামীম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, শিশুদের সঙ্গে নদীতে গোসলে নামে শিশু মোহাম্মাদ। এক পর্যায়ে সে ডুবে যায়। পরে স্থানীয়রা পানিতে নেমে অনেক খোঁজাখুজি করে প্রায় দেড় ঘণ্টা পর শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

২৭ সেপ্টেম্বর- ২০২১ :

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে পানিতে ডুবে জান্নাতুল খাতুন (৫) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় মিথিলা (৫) নামে আরেক শিশুকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১) দুপুরে কামারখন্দ উপজেলার কর্ণসূতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শিশু জান্নাতুল ওই গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে।শিশুর বাবা নুরুল ইসলাম জানান, জান্নাতুল ও মিথিলা বাড়ীর পাশে খালের পানিতে ভেলায় চড়ে বেড়াচ্ছিল। এক পর্যায়ে তারা দুইজনই খালের পানিতে পড়ে যায়। পরে মিথিলা পানিতে পড়ে হাবুডুবু থাকা অবস্থায় স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে।

এই অবস্থায় বাড়ীর আশে পাশে কোথাও জান্নাতুলকে না পেয়ে খালের পানিতে খুঁজতে থাকে সবাই। এক পর্যায়ে পানির নিচ থেকে জান্নাতুলকে উদ্ধার করে। দুই শিশুকে হাসপাতালে নেয়া হলে জান্নাতুলকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। মিথিলা হাসপাতালে এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছে।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ